হল দিবস উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আনন্দ র‌্যালি করে শেখ হাসিনা ছাত্রী হল ও শহীদ মসিয়ূর রহমান হল। ছবি: রাজিব মন্ডল, ফটোগ্রাফার, যবিপ্রবি

হলে এখন শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বিরাজ করছে: যবিপ্রবি উপাচার্য

Share:

(যশোর ০১ অক্টোবর ২০১৯): যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেছেন, যবিপ্রবির হলগুলোতে এখন শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বিরাজ করছে। সুতরাং শিক্ষার্থীদের স্বাধীনভাবে চলতে হবে। একইসঙ্গে পড়াশোনায় মনোযোগী হতে হবে।

আজ মঙ্গলবার যবিপ্রবির শহীদ মসিয়ূর রহমান হল দিবস উপলক্ষে হলের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন এসব কথা বলেন।

হলের সুষ্ঠু পরিবেশের জন্য শিক্ষার্থীদের অবদান সবচেয়ে বেশি উল্লেখ করে অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে শিক্ষার্থীদের অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে। আমি তোমাদের কথা দিতে পারি, একটি আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান করতে যা যা করার দরকার, আমি তা-ই করব। তোমরা শুধু আমাকে একটা সুন্দর পরিবেশ দাও। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। এ সময় যদি আমরা বিশ্ববিদ্যালয়কে উন্নতির চরম শিখরে না নিয়ে যেতে পারি, তাহলে এর চেয়ে দুর্ভাগ্য আর কিছুই হতে পারে না।

অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, দেশের উন্নয়নে জননেত্রী শেখ হাসিনা জীবন বাজি রাখছেন। এখন আমাদের উচিত হবে তাঁর হাতকে শক্তিশালী করা। এ জন্য আমাদের সুস্থ ধারার রাজনীতিতে ফিরতে হবে। পড়াশোনার পাশাপাশি নিজেকে সাহায্য করা শিখতে হবে। কারণ যে নিজেকে সাহায্য-সহযোগিতা করতে পারে না, সে কাউকেই সাহায্য-সহযোগিতা করতে পারে না।

শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের প্রভোস্ট ড. প্রকৌশলী মোঃ আমজাদ হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন যবিপ্রবির ডিনস কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোঃ আনিছুর রহমান, প্রক্টর অধ্যাপক ড. শেখ মিজানুর রহমান, যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ নাজমুল হাসান, শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের সহকারী প্রভোস্ট মোঃ মজনুজ্জামান, মোঃ আল ওয়ালিদ, ড. মোঃ ওবায়েদ রায়হান, মোঃ হাবিবুর রহমান, যবিপ্রবি ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফিকুর রহমান অয়ন প্রমুখ। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন শহীদ মসিয়ূর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা। পরে ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন, রানার্স-আপদের মধ্যে কাপ তুলে দেওয়া হয়। একইসঙ্গে কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতাসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে হলের ছাত্রদের মধ্যে ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেওয়া হয়। এর আগে হল দিবস উপলক্ষে কেক কাটা, আনন্দ শোভাযাত্রা ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

হল দিবস উপলক্ষে শেখ হাসিনা ছাত্রী হলও কেক কাটা, আনন্দ শোভাযাত্রাসহ নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এসব অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা ছাত্রী হলের প্রভোস্ট ড. সেলিনা আক্তার, সহকারী প্রভোস্ট ফাতেমা তুজ জোহরা, ফারহানা ইয়াসমিন, জান্নাতুল ফেরদৌস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ২০১০ সালের ১ অক্টোবর শেখ হাসিনা ছাত্রী হল ও শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়।

বার্তা প্রেরক



মো: আব্দুর রশিদ

জনসংযোগ কর্মকর্তা

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,

যশোর ৭৪০৮, বাংলাদেশ।


Useful Links

JUST. Copyright © 2019. All Rights Reserved. Developed by Genesys Softwares