যবিপ্রবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একাডেমিক ভবনের গ্যালারিতে শেখ হাসিনা ছাত্রী হল আয়োজিত ‘শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ছবি: রাজিব মন্ডল, ফটোগ্রাফার, যবিপ্রবি

যবিপ্রবিকে দুর্নীতি মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ঘোষণা উপাচার্যের

Share:

(যশোর ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯): যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে (যবিপ্রবি) দুর্নীতি মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন। তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশের প্রথম ভূখণ্ড হিসেবে যবিপ্রবিকে দুর্নীতি মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ঘোষণা দিচ্ছি। মাননীয় নেত্রী আপনার ৭৩তম জন্মদিনে এটা আমাদের উপহার।’

আজ শনিবার বিকেলে যবিপ্রবির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একাডেমিক ভবনের গ্যালারিতে শেখ হাসিনা ছাত্রী হল আয়োজিত ‘শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন এসব কথা বলেন।  

অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বাংলাদেশের প্রথম দুর্নীতি মুক্ত ভূখণ্ডের বাসিন্দা হলেন আপনারা। তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে কেউ যদি দুর্নীতি করার মানসিকতা পোষণ করেন, তাহলে বেরিয়ে যান। ধরা খেলে নিস্তার হবে না। তিনি বলেন, যদি কেউ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির নামে গুন্ডামি করে, হাইজ্যাক করে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে, তাহলে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। 

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন যবিপ্রবির ডিনস কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোঃ আনিছুর রহমান, যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মোঃ ইকবাল কবীর জাহিদ, সাধারণ সম্পাদক ড. মোঃ নাজমুল হাসান, শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের প্রভোস্ট ড. প্রকৌশলী মোঃ আমজাদ হোসেন, যবিপ্রবি রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ আহসান হাবীব, শেখ হাসিনা ছাত্রী হলের প্রভোস্ট ড. সেলিনা আক্তার, যবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফিকুর রহমান অয়ন, শেখ হাসিনা হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শিলা আক্তার, যবিপ্রবি কর্মচারী সমিতির সভাপতি সাজেদুর রহমান জুয়েল প্রমুখ।

এর আগে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন পালন উপলক্ষে দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গঠনের অঙ্গিকার নিয়ে আনন্দ শোভাযাত্রা, কেককাটা, বৃক্ষরোপনসহ দিনব্যাপী নানা আয়োজন করা হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের শুরুতে সকাল ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ হাসিনা ছাত্রী হল প্রাঙ্গনে কেক কাটেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘আজকের দিনে আমাদের শপথ হবে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দুর্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ গঠনের অঙ্গিকার করা।’ এরপর প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনায় অনুষ্ঠিত হয় দোয়া-মোনাজাত। পরে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে তিনি হল প্রাঙ্গণে বৃক্ষরোপন করেন।

শেখ হাসিনা ছাত্রী হলের আনুষ্ঠানিকতা শেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনের কেক কাটা হয় শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের প্রাঙ্গণে। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে ক্যাসিনো, মদ-জুয়ার বিরুদ্ধে অ্যাকশন শুরু করেছেন। তাঁর হাতকে শক্তিশালী করতে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।’

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে সকাল ৯টায় আনন্দ শোভাযাত্রা বের করে যবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক থেকে শোভাযাত্রাটি শুরু হয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একাডেমিক ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যেষ্ঠ শিক্ষকদের নিয়ে কেক কাটেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ও হল শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন যবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফিকুর রহমান অয়ন, শহীদ মসিয়ূর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা, নাজমুস সাকিব প্রমুখ।

বেলা ১১টার সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে প্রশাসনিক ভবনের নিচে কেক কাটেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারী সমিতি। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন, কর্মচারী সমিতির সভাপতি এস এম সাজেদুর রহমান জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক কে এম আরিফুজ্জামান সোহাগসহ অন্যন্য কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বাদ জোহর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে তাঁর দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনায় অনুষ্ঠিত হয় বিশেষ দোয়া-মোনাজাত। দোয়া-মোনাজাত পরিচালনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মোঃ আকরামুল ইসলাম।  


‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ উদ্বোধন: বেলা আড়াইটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইকেল মধুসূদন দত্ত লাইব্রেরি কাম একাডেমিক ভবনের দ্বিতীয় তলায় উদ্বোধন করা হয় ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’। বঙ্গবন্ধু কর্নার স্থাপন করার উদ্দেশ্য হচ্ছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্ম সম্পর্কে তরুণ প্রজন্মকে সম্যক ধারণা দেওয়া, তাঁর ভাষণসমূহ, তাঁর উপর লিখিত পুস্তকসমূহের জ্ঞান অর্জনে গ্রন্থাগার ব্যবহারকারীকে সহায়তা, বঙ্গবন্ধুর জীবনের উপর নির্মিত আলোকচিত্রসমূহ প্রদর্শন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরকে জাতির মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে সহায়তা করা।

বিকেলে স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি নীল দলের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর ৭৩তম জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা হয়। এ সময় যবিপ্রবি নীল দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মোঃ ইকবাল কবীর জাহিদ, যুগ্ম আহ্বায়ক ড. মোঃ নাজমুল হাসানসহ দলটির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।   

বার্তা প্রেরক

 


মো: আব্দুর রশিদ

জনসংযোগ কর্মকর্তা

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়,

যশোর ৭৪০৮, বাংলাদেশ।


Useful Links

JUST. Copyright © 2019. All Rights Reserved. Developed by Genesys Softwares