মাদক নিলে মানুষ পশুতে পরিণত হয়: ড. আনোয়ার
মাদক নিলে মানুষ পশুতে পরিণত হয় উল্লেখ করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেছেন, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আজ থেকে জঙ্গিবাদ ও মাদক মুক্ত থাকবে।

আজ বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্যালারিতে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং যশোর জেলা পুলিশের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত পুলিশ-ছাত্র কাউন্সিল অনুষ্ঠানে ড. আনোয়ার এসব কথা বলেন।

ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফিরাত কামনা ও তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে এই শপথ করছি, আমার যারা তার পথের সৈনিক বা যারা ছাত্রলীগ কর্মী ও যারা অন্যান্য সংগঠন করি, আমরা সকলেই শপথ করছি আজ থেকে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে মাদক ও জঙ্গিবাদ মুক্ত করা হলো।

অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, পুলিশ সত্যিকারে জনগণের বন্ধু হবে, তখন তাদের দ্বারা কোনো ছাত্র নির্যাতিত হবে না বা তারাও কোনো পুলিশ সদস্যকে অসম্মানিত করবে না। পুলিশ মানুষের বন্ধু হলে সাধারণ মানুষ পুলিশকে ভয় না পেয়ে বন্ধু মনে করবে।

মাদক ও জঙ্গিকে কোনো ছাড় না দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে যশোর জেলা পুুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ জঙ্গিবাদ দমন ও মাদক মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছে। আমরা যশোর জেলা পুলিশ যশোর জেলাকে জঙ্গিমুক্ত করার শপথ নিয়েছি ও অনেকটা সফলও হয়েছি আর বাকিটা বাস্তবায়নের সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে সাধারণ জনগন জঙ্গি সদস্যকে বয়কট করেছে। যবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ করে আনিসুর রহমান বলেন, আপনারা সকলে সচেতন ও সচেষ্ট হয়ে জঙ্গি ও মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর প্রতিরোধ গড়ে তুলবেন ও জঙ্গি ও মাদকমুক্ত ক্যাম্পাস গড়ে তুলবেন বলে আমি ব্যক্তিগতভাবে আশা রাখি। এই অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় যারা নিরলস চেষ্টা চালিয়েছেন সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করি।

অনুষ্ঠানে যশোর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম রব্বানী মাদক ও জঙ্গিবাদের ক্ষতিকারক দিকসমূহ তুলে ধরেন।

যশোর জেলার পুলিশ সুপার আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন জেনেটিং ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়ো-টেকনোলজি সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. জিয়াউল আমিন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. মশিয়ার রহমান, ছাত্র নির্দেশনা পরামর্শ দপ্তরের পরিচালক ড. মো. নাজমুল হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাউদ্দিন সিকদার, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সুব্রত বিশ্বাস, শেখ হাসিনা হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়রা আজমির জেরিন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Post comment