যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ৪৫তম রিজেন্ট বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আনোয়ার হোসেন। ছবি: জনসংযোগ শাখা, রেজিস্ট্রার দপ্তর

 

গত ৫ অক্টোবর মধ্যরাতে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) অনাকাঙ্খিত ঘটনার প্রেক্ষিতে গঠিত তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক পদত্যাগ করায় ওই কমিটি পুনর্গঠন করা হয়েছে। আজ শনিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম রিজেন্ট বোর্ডের সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
 পুনর্গঠিত পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়ো-টেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো: জিয়াউল আমিনকে। আর সদস্য করা হয়েছে জেলা প্রশাসক, যশোরের একজন প্রতিনিধি, পুলিশ সুপার, যশোরের একজন প্রতিনিধি এবং রিজেন্ট বোর্ডের প্রতিনিধি হিসেবে রাখা হয়েছে ড. ওমর ফারুককে। কমিটির সদস্য-সচিব থাকবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর কামরুল ইসলাম। কমিটিকে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে ঘটনার প্রকৃত কারণ উদ্ঘাটন, দায়ীদের চিহ্নিতকরণ এবং ভবিষ্যতে যেন এ ধরনের ঘটনা না ঘটে এ জন্য সুপারিশ পেশ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
 এর আগে রিজেন্ট বোর্ডের সভার শুরুতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট প্রতিনিধি দলের বক্তব্য শোনেন বোর্ডের সদস্যরা। পরে তাঁরা রিজেন্ট বোর্ডে তাদের দাবি-দাওয়া সংবলিত একটি স্মারকলিপি পেশ করেন। বোর্ডের সদস্যরা সেটার বিভিন্ন দিক নিয়ে পর্যালোচনা করেন।
 রিজেন্ট বোর্ডের সভায়, সেশনজট দূর করতে ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি থেকে প্রণীত হতে যাওয়া একাডেমিক ক্যালেন্ডার অনুমোদন করা হয়। এ ছাড়া ২০তম একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত এবং অর্থ কমিটির ২৩তম সভার সিদ্ধান্তসমূহ অনুমোদন করা হয়।
 যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে রিজেন্ট বোর্ডের সভায় উপস্থিত ছিলেন যবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ আবুল হোসেন, যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, যশোর-৫ আসনের সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য্য, ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার এম. বজলুল করিম চৌধুরী, যশোর আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. সিরাজুল ইসলাম, জাহাঙ্গীনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. শরীফ এনামুল কবীর, ইব্রাহিম কার্ডিয়াক হাসপাতাল অ্যান্ড রিসার্চ ইন্সিটিটিউটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুর রশীদ, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, যশোর এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ আব্দুল আলীম, যবিপ্রবির জীব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ, ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন ড. মো. ওমর ফারুক, বিজ্ঞান অনুষদের ডীন ড. এ এস এম মুজাহিদুল হক, বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতির চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন, সরকারী এম. এম. কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. মিজানুর রহমান, সরকারী সিটি কলেজ, যশোরের অধ্যক্ষ অধ্যাপক আবু তোরাব মোহাম্মদ হাসান এবং যবিপ্রবির রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. আহসান হাবীব প্রমুখ।